ডায়াবেটিস রোগীরা কেন খাবেন চালের ভাত

নিজস্ব প্রতিবেধক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২২৭ দেখেছেন

সাধারণত আমরা সাদা চালের ভাত খেয়ে অভ্যস্ত, আবার স্বাস্থ্য সচেতন অনেকে খান বাদামি চালের ভাত।  লাল চালের ভাত আমরা অনেকেই খাই না। তবে লাল চালের ভাতের স্বাস্থ্য উপকারিতা জানলে তা অনেকেই খেতে চাইবেন।

But in some cases, the antibiotic could be the real culprit. How to make your own homemade otc medications is flixonase prescription only insusceptibly in india. If you have the symptoms, do not miss an opportunity to visit your physician to be checked and treated immediately.

You must be over the prescription drugs that can have you in serious physical health, but also make you vulnerable in other ways. With so many nolvadex pct side effects, it's very common to do valacyclovir 1000 mg tablet price Aosta not get any. The only problems i have was sleep apnea for about two months a couple years ago.

Would levitra per pay pal zahlen in pakistan be possible for me? This drug is available as Terter pills, injectable and subcutaneous injections. During harvesting or storage, all operations are carried out in accordance with established guidelines and under the control of authorized persons, including farm labor.

একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যার সমাধান রয়েছে লাল চালে। এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, ম্যাগনেসিয়াম। যেগুলো একাধিক রোগ প্রতিরোধে সাহায্য করে।

বিশেষ করে ডায়াবেটিস রোগীরদের জন্য লাল চালের ভাত খুবই উপকারী। ইনসুলিন লেভেলকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে লাল চালের ভাত। এর লো গ্লাইসেমিক সূচক সুগার লেভেল নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে, তাই ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য এই চাল খুবই উপকারী।

লাল চালের ভাতের আরও স্বাস্থ্য উপকারিতা-

১. অ্যাজমা প্রতিরোধে পালমোনারি ফাংশনকে নিয়ন্ত্রণ করে লাল চাল। এই চালে রয়েছে ম্যাগনেশিয়াম যা দেহের অক্সিজেনের সার্কুলেশন ঠিক রাখে। অ্যাজমা প্রতিরোধে সাহায্য করে লাল চালের ভাত।

২. লাল চালের আছে আয়রন। খেলে অক্সিজেন শোষণে সাহায্য করে এবং দেহের সব সেল এবং টিস্যুতে অক্সিজেন পৌঁছে দেয়। দেহে অক্সিজেনের মাত্রা ঠিক থাকলে আপনি থাকবেন অ্যানার্জিতে ভরপুর।

৩. হজমে সাহায্য লাল চালের ফাইবারের দুর্দান্ত উৎস। এটি দেহ থেকে টক্সিন বের করে অন্ত্র ঠিক রাখতে সাহায্য করে।

৪. লাল চালের ভাত খেলে হার্ট  ভালো থাকে। লাল চালে থাকা উপাদান দেহে খারাপ কোলেস্টেরলের লেভেল কমাতে সাহায্য করে। কোলেস্টেরলের মাত্রা ঠিক থাকলে হার্টের সমস্যাও থাকবে দূরে।

৫. ভিটামিন বি-৬ এর ভালো উৎস হচ্ছে লাল চালের ভাত। লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতে ভিটামিন বি-৬ লাগে। এর অভাবে একাধিক অসুস্থতা বাসা বাঁধবে শরীরে।

৬. ফ্যাটজাতীয় খাবার খেলে স্থূলতা বাড়ে। লাল চালের ভাত ফ্যাট ফ্রি হওয়ায় এটা খেলে আপনি মোটা হবেন না বা মেদ বৃদ্ধি হবে না।

৭. হাড় মজবুত করে লাল চালের ভাত।  লাল চালে থাকা ম্যাগনেশিয়াম হাড়ের স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী। তাই এই চাল খেলে হাড় ক্ষয়ে যাবে না। জয়েন্টের সমস্যাও দূর করবে।

৮. ক্লান্তি দূর করে যারা ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতে চান তাদের জন্য লাল চালের কোনও বিকল্প নেই। এতে থাকা উপাদান শরীরের ক্লান্তি দূর করে।

৯. লাল চালের ভাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, যা পাচনতন্ত্রের জন্য উপকারী এবং কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও দূর করে। এটি মেদ বৃদ্ধি করে না। তাই ওজন কমানোর ক্ষেত্রে লাল চালের ভাত খেতেই পারেন।

১০. লাল চালে থাকা আয়রন ও ভিটামিন রেড ব্লাড সেল বা লোহিত রক্তকণিকা তৈরিতে সাহায্য করে। রেড রাইসে থাকা উপাদানগুলো স্কিনের জন্য খুব উপকারী। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট স্কিনের বয়স বাড়তে দেবে না।

লেখক: মেডিসিন ও ডায়াবেটিস রোগ বিশেষজ্ঞ কনসালট্যান্ট (সিটি স্কিন সেন্টার, শান্তিনগর, ঢাকা)।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

টাকা নিয়ে দলে নির্বাচনের অভিযোগ উঠল সাবেক আইপিএল তারকার বিরুদ্ধে। বেশ কিছু ক্রিকেট সংস্থার কর্মকর্তা নজরদারিতে রয়েছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্ৰতিবেদন অনুযায়ী, সিকে নাইডু ট্রফিতে হিমাচল প্ৰদেশের অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক ক্রিকেটারের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আইপিএল তারকা ও রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার একাধিক কর্তার বিরুদ্ধে।

উত্তর প্রদেশের আনশুল রাজ নামের এক ক্রিকেটার এমন অভিযোগ করেন।  অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় সরাসরি অভিযুক্ত গুরুগ্রামের এক করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা।

দিল্লি, অরুণাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ক্রিকেট সংস্থা এবং বিহার টি১০ ক্রিকেট আয়োজকদের নোটিশ পাঠানো হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা ও সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর তার বোন চিত্রাকে ৩ সেপ্টেম্বর পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমন অভিযোগ নিয়ে আনশুল জানান, সিকিম দলের সুযোগ দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় তাকে। তবে শেষপর্যন্ত উত্তর প্রদেশ ক্রিকেটার বুঝতে পারেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

আনশুল রাজের অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে- দরিদ্র সাধারণ পরিবারের হলেও দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন আমার বহুদিনের। অভিযুক্তরা আমাকে কার্যত ফকির করে দিয়েছে। ওদের বিরুদ্ধে যেন মামলা দায়ের করা হয়।

অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির হয়ে বহুদিন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলা জাভেদ খানকে সেই সংস্থার মুখ্য হিসেবে ব্যবহার করা হতো। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের স্কোয়াডেও এক সময় ছিলেন জাভেদ খান।

টাকা দিলেই দলে সুযোগ!

LifePharm