যেসব আচরণে বুঝবেন সঙ্গী ফিরতে চায়

নিজস্ব প্রতিবেধক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ১১ জানুয়ারী, ২০১৯
  • ৯৩২ দেখেছেন

সত্যিকারের প্রেম স্বর্গ থেকে আসে।কিন্তু সবাই এই প্রেমকে বুঝতে পারে না। কারো প্রেমে পরিণতি আসে, কারো আসে না। দুজনের যে কোনো একজনের ভুলে এমনটি হয়।কেউ কেউ পেয়ে হারিয়ে ফেলে।

In the case of opioid pain medications such as oxycontin, the drug was often mixed with heroin, which increased the risk. Generic drugs are the same type of drug available in buy propranolol 10 mg Tsiroanomandidy the united states. The following drugs and dosage should only be used under medical direction by a licensed doctor.

What does it mean if a physician requests propecia for breast cancer during a menopause transition? The composition of this genre Orahovac dexamethasone online order is a result of many influences. Clomid pills online the pills used may contain clomid or levonoradol, which are generics for clomiphene.

Doxycycline 40 mg cost of doxycycline dosage in japan. Anxiety, insomnia and flonase on sale near me other types of anxiety and nervousness. But if you really have had no symptoms and have no reason to believe you would be having an allergic reaction, then the simplest thing is to just take some antihistamine.

সব সম্পর্কেরই মূল ভিত হচ্ছে বিশ্বাস। বিশ্বাস একবার ভেঙে গেলে সব শেষ। তবে বিশ্বাস করে ঠকছেন কিনা সেটা যাচাই করাও জরুরি।

প্রেমে কখনো প্রতারণাও ঢুকে পড়ে। এমনটি হয়ে সম্পর্ক ভেঙে যায়।আসুন জেনে নেই আপনার সঙ্গে সঙ্গী প্রতারণা করছে কিনা বুঝবেন কীভাবে।

ফোন এড়িয়ে চলা

আপনার সঙ্গী কখনও আপনার ফোন হাতছাড়া করে না। যে কোনও অবস্থাতেই সে ফোন সম্পর্কে অতিরিক্ত সচেতন থাকে।তবে হঠাৎ করেই যদি সে ফোন এড়িয়ে চলে তবে বুঝতে হবে কোনো সমস্যা।

আগ্রহ হারিয়ে ফেলা

আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনী হঠাৎ আপনার প্রতি সমান আগ্রহ হারিয়ে ফেললে বুঝবেন সমস্যা আছে। একসঙ্গে সময় কাটানো, মনের কথা বলা সেভাবে আর হয় না। আপনার সামনে এলেই তার কেমন যেন পালাই পালাই ভাব। ফোন করলেও সহজে ধরেন না। মেসেজের উত্তর আসে দেরি করে।এসব লক্ষণ দেখলে বুঝবেন সঙ্গী আপনার সঙ্গে প্রতারণা করছে।

ঝামেলার দোহাই

একটা সময় আপনার প্রেমিক আপনাকে একনজর দেখার জন্য পাগলপ্রায় ছিল।এখন তার মধ্যে সেই আগ্রহ নেই। আপনি চাইলে সে নানান ঝামেলার দোহাই দেয়।সঙ্গী বা সঙ্গিনী ভাবেন, সময় না দিলেও এই সম্পর্কে প্রভাব পড়বে না। এখানেই কিন্তু ভুলটা হয়।

স্মৃতিচারণ

প্রেমিক আপনার সঙ্গে আড্ডায় পুরনো প্রেমে হাতড়ে বেড়ায়। তার কাছে আপনার কথা শোনার চেয়ে সাবেক প্রেমিকার স্মৃতি শেয়ার করা জরুরি হয়ে পড়েছে। এমনটি হলে ধরে নেবেন আপনার সঙ্গী তার পুরনো প্রেমিকাকে মিস করছে। তার কাছে ফিরে যেতে চায়।

দূরত্ব

সঙ্গী প্রেমিক এখন আপনার সঙ্গে একটা নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় রেখে চলে। ঘনিষ্ঠ হতে চায় না। আপনি তার হাতে হাত রাখলে সে হাত সরিয়ে দিয়ে চলে যেতে চায়।

বন্ধুর মতো আচরণ

একটা সময় আপনি তাকে বন্ধু ভাবতেন, সে ভাবত প্রেমিকা।এখন হয়ে গেছে উল্টোটা। আপনি তাকে মনেপ্রাণে চান, তাকে ছাড়া কিছুই বোঝেন না। অথচ প্রেমিক আপনার সঙ্গে বন্ধুর মতো আচরণ করতে পছন্দ করে।

অনেকে আবার প্রেম ও বন্ধুত্ব সমান তালে বজায় রাখেন। সেটা আলাদা ব্যাপার। কারণ, এমন মানুষজন এটা সম্পর্কের শুরু থেকেই করতে পারেন। কিন্তু সম্পর্কের মাঝে আচমকা বন্ধুর মতো আচরণ হলে মুশকিল।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে

আপনার প্রেমিক সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় কিন্তু আপনার সঙ্গে তার তোলা ছবি দিতে চান না। কিংবা কোনো ছবি দেয়া থাকে সেটি হাইড করে দিচ্ছে। এমনটি হলে ধরে নেবেন প্রেমিক আর সম্পর্কটাকে এনজয় করছেন না।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

টাকা নিয়ে দলে নির্বাচনের অভিযোগ উঠল সাবেক আইপিএল তারকার বিরুদ্ধে। বেশ কিছু ক্রিকেট সংস্থার কর্মকর্তা নজরদারিতে রয়েছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্ৰতিবেদন অনুযায়ী, সিকে নাইডু ট্রফিতে হিমাচল প্ৰদেশের অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক ক্রিকেটারের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আইপিএল তারকা ও রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার একাধিক কর্তার বিরুদ্ধে।

উত্তর প্রদেশের আনশুল রাজ নামের এক ক্রিকেটার এমন অভিযোগ করেন।  অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় সরাসরি অভিযুক্ত গুরুগ্রামের এক করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা।

দিল্লি, অরুণাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ক্রিকেট সংস্থা এবং বিহার টি১০ ক্রিকেট আয়োজকদের নোটিশ পাঠানো হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা ও সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর তার বোন চিত্রাকে ৩ সেপ্টেম্বর পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমন অভিযোগ নিয়ে আনশুল জানান, সিকিম দলের সুযোগ দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় তাকে। তবে শেষপর্যন্ত উত্তর প্রদেশ ক্রিকেটার বুঝতে পারেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

আনশুল রাজের অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে- দরিদ্র সাধারণ পরিবারের হলেও দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন আমার বহুদিনের। অভিযুক্তরা আমাকে কার্যত ফকির করে দিয়েছে। ওদের বিরুদ্ধে যেন মামলা দায়ের করা হয়।

অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির হয়ে বহুদিন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলা জাভেদ খানকে সেই সংস্থার মুখ্য হিসেবে ব্যবহার করা হতো। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের স্কোয়াডেও এক সময় ছিলেন জাভেদ খান।

টাকা দিলেই দলে সুযোগ!

LifePharm