মুক্তিযুদ্ধের নাটক দিয়ে ফিরলেন চৈতী

নিজস্ব প্রতিবেধক
  • প্রকাশিত : শুক্রবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৯৮ দেখেছেন

করোনাভাইরাস আসার আগে গত জানুয়ারি মাসে সর্বশেষ নাটকে অভিনয় করেছিলেন মডেল ও অভিনেত্রী ইসরাত জাহান চৈতী। ১১ মাস পর আবারও নাটকে ফিরলেন তিনি।

এবার তাকে মুক্তিযুদ্ধের গল্পের নাটকে অভিনয় করতে দেখা যাবে।  বিটিভির নিজস্ব প্রযোজনায় নির্মিত এ নাটকের নাম ‘মুখোশ’। এটি প্রযোজনা করেছেন আফরোজা সুলতানা অ্যানী।

নাটকে চৈতী কেন্দ্রীয় একটি চরিত্রেই অভিনয় করেছেন। যেখানে তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতি সংগ্রহ করেন। সেসব সংরক্ষিত স্মৃতিচিহ্ন নিয়ে একটি জাদুঘর তৈরি করবেন। এভাবেই তার চরিত্রটি এগিয়ে যায়।

এতে অভিনয় প্রসঙ্গে চৈতী বলেন, ‘আমি তুলনামূলক কম কাজই করছি। তবে বিশেষ দিবসের এই নাটকটির গল্প এবং আমার চরিত্রটি ভালোলাগায় এতে অভিনয় করেছি। মুক্তিযুদ্ধের গল্পের নাটকে অভিনয়ে অন্যরকম এক উৎসাহ কাজ করে মনের মধ্যে। অভিনয় জীবনে অনেকবার মুক্তিযুদ্ধের গল্পের নাটকে অভিনয় করেছি। আশা করছি এই নাটকটি দর্শকের ভালো লাগবে।’

নাটকটি ১২ ডিসেম্বর রাত ৯টায় বিটিভিতে প্রচার হবে।

এদিকে এরই মধ্যে একাধিক খণ্ড ও ধারাবাহিক নাটকে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছেন চৈতী।  এই অভিনেত্রী সর্বশেষ দীপ্ত টিভির দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটক ‘মধ্যবর্তিনী-২’-এ অভিনয় করেন।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

টাকা নিয়ে দলে নির্বাচনের অভিযোগ উঠল সাবেক আইপিএল তারকার বিরুদ্ধে। বেশ কিছু ক্রিকেট সংস্থার কর্মকর্তা নজরদারিতে রয়েছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্ৰতিবেদন অনুযায়ী, সিকে নাইডু ট্রফিতে হিমাচল প্ৰদেশের অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক ক্রিকেটারের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আইপিএল তারকা ও রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার একাধিক কর্তার বিরুদ্ধে।

উত্তর প্রদেশের আনশুল রাজ নামের এক ক্রিকেটার এমন অভিযোগ করেন।  অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় সরাসরি অভিযুক্ত গুরুগ্রামের এক করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা।

দিল্লি, অরুণাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ক্রিকেট সংস্থা এবং বিহার টি১০ ক্রিকেট আয়োজকদের নোটিশ পাঠানো হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা ও সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর তার বোন চিত্রাকে ৩ সেপ্টেম্বর পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমন অভিযোগ নিয়ে আনশুল জানান, সিকিম দলের সুযোগ দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় তাকে। তবে শেষপর্যন্ত উত্তর প্রদেশ ক্রিকেটার বুঝতে পারেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

আনশুল রাজের অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে- দরিদ্র সাধারণ পরিবারের হলেও দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন আমার বহুদিনের। অভিযুক্তরা আমাকে কার্যত ফকির করে দিয়েছে। ওদের বিরুদ্ধে যেন মামলা দায়ের করা হয়।

অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির হয়ে বহুদিন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলা জাভেদ খানকে সেই সংস্থার মুখ্য হিসেবে ব্যবহার করা হতো। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের স্কোয়াডেও এক সময় ছিলেন জাভেদ খান।

টাকা দিলেই দলে সুযোগ!

LifePharm