আফ্রিকান গতিময় উইকেটে সরফরাজের বাজির ঘোড়া ইয়াসির!

নিজস্ব প্রতিবেধক
  • প্রকাশিত : বুধবার, ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৮
  • ১০২৭ দেখেছেন

স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বক্সিং ডে টেস্টে আগামীকাল মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্তান। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট ম্যাচটি হবে সেঞ্চুরিয়নের চিরাচরিত গতিময় বাউন্সি উইকেটে। কিন্তু পাক অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ বাজি রাখছেন স্পিনার ইয়াসির শাহর ভেল্কির ওপর। পাক দলের হেড কোচ মিকি আর্থারের পিচ পরিদর্শনের সূত্র ধরে সরফরাজ এমনটা ভাবছেন।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি সুপার লিগ ও গত বছর অনুষ্ঠিত একটি টেস্ট ম্যাচে সেঞ্চুরিয়নের উইকেটের আচরণ দেখে পাক দলের দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ আর্থার পিচকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের উইকেটের সাথে তুলনা করেন। যদিও ম্যাচ শুরুর মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগে উইকেটটি এখনো সম্পূর্ণভাবে সবুজ ঘাসে মোড়ানো, তবু কোচ আর্থারের কথায় আস্থা রেখে ইয়াসির শাহকেই আফ্রিকানদের জন্য সবচেয়ে বড় হুমকি বলছেন অধিনায়ক সরফরাজ।

সরফরাজ বলছেন- ‘এখানে টস জিতলে অবশ্যই চোখ বন্ধ করে সবাই ব্যাট করবে। উইকেট শুরুর দিকে পেসবান্ধব থাকলেও শেষে স্পিনারদের জন্য সহায়ক হয়। তাই চতুর্থ ইনিংসে রান তাড়া করার ঝুঁকি কেউই নিতে চাইবে না।’

ইনজুরির জন্য মোহাম্মদ আব্বাস প্রথম টেস্ট থেকে ছিটকে গেলেও হাসান আলী, নবাগত শাহীন আফ্রিদি আর দলে ফিরে আসা তারকা পেসার মোহাম্মদ আমিরকে নিয়ে পাকিস্তানের পেস আক্রমণটা এক কথায় দারুণ। কিন্তু মাত্র ৩৩ টেস্টে দুই শতাধিক উইকেট নেওয়া ইয়াসির শাহ দক্ষিণ আফ্রিকা দলকে বেশি ভোগাবেন, এমনটাই ভাবছেন সরফরাজ। দক্ষিণ আফ্রিকা দলের চিরায়ত স্পিন খেলার দুর্বলতা আর বিগত তিন বছর ধরে টেস্ট ম্যাচে ইয়াসিরের মতো বিশ্বমানের স্পিনারকে না খেলার অনভিজ্ঞতাই সরফরাজের আশার পালে জোর হাওয়া দিচ্ছে।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

টাকা নিয়ে দলে নির্বাচনের অভিযোগ উঠল সাবেক আইপিএল তারকার বিরুদ্ধে। বেশ কিছু ক্রিকেট সংস্থার কর্মকর্তা নজরদারিতে রয়েছেন।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্ৰতিবেদন অনুযায়ী, সিকে নাইডু ট্রফিতে হিমাচল প্ৰদেশের অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক ক্রিকেটারের কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আইপিএল তারকা ও রাজ্য ক্রিকেট সংস্থার একাধিক কর্তার বিরুদ্ধে।

উত্তর প্রদেশের আনশুল রাজ নামের এক ক্রিকেটার এমন অভিযোগ করেন।  অনূর্ধ্ব-২৩ দলে সুযোগ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ১০ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ায় সরাসরি অভিযুক্ত গুরুগ্রামের এক করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা।

দিল্লি, অরুণাচল প্রদেশ, উত্তরাখণ্ড ক্রিকেট সংস্থা এবং বিহার টি১০ ক্রিকেট আয়োজকদের নোটিশ পাঠানো হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে।

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- করপোরেট ম্যানেজমেন্ট ফার্মের প্রেসিডেন্ট আশুতোষ বোরা ও সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর তার বোন চিত্রাকে ৩ সেপ্টেম্বর পুলিশ গ্রেফতার করে।

এমন অভিযোগ নিয়ে আনশুল জানান, সিকিম দলের সুযোগ দেওয়ারও প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয় তাকে। তবে শেষপর্যন্ত উত্তর প্রদেশ ক্রিকেটার বুঝতে পারেন তিনি প্রতারণার শিকার হয়েছেন।

আনশুল রাজের অভিযোগপত্রে বলা হয়েছে- দরিদ্র সাধারণ পরিবারের হলেও দেশের হয়ে খেলার স্বপ্ন আমার বহুদিনের। অভিযুক্তরা আমাকে কার্যত ফকির করে দিয়েছে। ওদের বিরুদ্ধে যেন মামলা দায়ের করা হয়।

অভিযোগে আরও বলা হয়েছে, দিল্লির হয়ে বহুদিন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট খেলা জাভেদ খানকে সেই সংস্থার মুখ্য হিসেবে ব্যবহার করা হতো। মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের স্কোয়াডেও এক সময় ছিলেন জাভেদ খান।

টাকা দিলেই দলে সুযোগ!

LifePharm